হঠাৎ আলোচনায় স্বাচিপ নেতা আবদুল আজিজ

সিরাজগঞ্জ-৩ (রায়গঞ্জ-তাড়াশ) আসন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগেরদলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের অনেকেই ঢাকায় অবস্থান করছেন। মনোনয়ন পেতে তাঁরা দলের নীতিনির্ধারণকারী নেতাদের কাছে নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণের চেষ্টা করছেন। এদিকে এলাকায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে চলছে নানা জল্পনাকল্পনা। এই প্রেক্ষাপটে গত বুধবার থেকে এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে, এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) নেতা আবদুল আজিজ।

রায়গঞ্জ ও তাড়াশ উপজেলার ১৭টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভা নিয়ে আসনটি গঠিত। ২ উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬২ হাজার ৩১ জন। এই আসনে ২০ জন নেতা আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী। তাঁদের মধ্যে আলোচনায় আছেন বর্তমান সাংসদ গাজী ম ম আমজাদ হোসেন, সাবেক সাংসদ প্রয়াত ইসহাক হোসেন তালুকদারের ছোট ছেলে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ইমরুল হোসেন তালুকদার, শিল্পপতি ও সলঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা টি এম লুৎফর রহমানসহ বেশ কয়েকজন।

স্থানীয় নেতা–কর্মী ও এলাকার লোকজন বলছেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে সবুজসংকেত পেয়েছেন আবদুল আজিজ।

কিন্তু গত বুধবার থেকে এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে, এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাচ্ছেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও তাড়াশ উপজেলার বাসিন্দা আবদুল আজিজ। এ নিয়ে বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ও চায়ের দোকানে আলোচনার ঝড় বইছে।

রায়গঞ্জ পৌরসভার ধানগড়া বাজারের দুজন চায়ের দোকানি বলেন, পরিচিত নেতাদের বাদ দিয়ে অপরিচিত একজনের নাম শোনা যাচ্ছে। এর পক্ষে-বিপক্ষে লোকজন নানা কথা বলছেন। এতে তাঁদের বিক্রি বেড়ে গেছে।

উপজেলার ধামাইনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল হক বলেন, ‘হাওয়া থেকে পাওয়া কোনো খবর আমরা বিশ্বাস করতে চাই না। দলের মনোনয়নপত্র দেখেই এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাই।’

এ বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার মুঠোফোনে জানতে চাইলে আবদুল আজিজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘দলীয় মনোনয়ন বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাবে না।’

অনুসন্ধান

পুরাতন খবর

এই বিষয়ের আরো খবর

© All rights reserved © 2017 ThemesBazar.Com

Desing & Developed BY লিমন কবির